খাবারের তালিকায় রসুন রাখলে আপনি বেঁচে যেতে পারেন নানারকম অসুখের হাত থেকে। গবেষণায় দেখা গেছে, একটি মাঝারি সাইজের রসুনে এক লাখ ইউনিট পেনিসিলিনের সমান অ্যান্টিবায়োটিকের কার্যক্ষমতা রয়েছে। শুধু তাই নয়, ব্যাকটেরিয়া ও প্রোটোজোয়ার মাধ্যমে সৃষ্টি অ্যামিবিক ডিসেনট্রি নির্মূলের ক্ষেত্রে রসুন বেশ কার্যকরী।



চলুন জেনে নিই, রসুনের কিছু উপকারিতা-


যারা উচ্চরক্তচাপে ভুগছেন তারা রসুন খেতে পারেন। উপকার পাবেন। রক্তে কোলেস্টেরল স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হলে কাঁচা রসুন চিবিয়ে খান। সর্দি কাশিতেও রসুন উপকারী।
শরীরের ব্যথা কমায় রসুন। রসুন হচ্ছে ন্যাচারাল পেইন কিলার। শিশু কিংবা বড়দের দাঁতে ব্যথা হলে একে কোষ রসুন চিবালে দাঁতে ব্যথা উপশম হবে।


রসুন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে।


হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সহায়ক রসুন।


নিয়মিত রসুন খেলে ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসজনিত রোগের ঝুঁকি কমে যায়।


আরও পড়ুনঃ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে যেসব অভ্যাস
এআর/১১ আগস্ট





মূল সংবাদটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন